কুমিল্লায় গোমতী নদীতে মাটি কাটার অপরাধ তিন লাখ টাকা জরিমানা; ট্রাক্টর জব্দ

মোঃ সাফি।।
প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে কুমিল্লার গোমতী নদী পাড়ের মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে একাধিক চক্র। জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চললেও থেমে থাকে না মাটি খেকো চক্রের অবৈধ কর্মকান্ড।

শুক্রবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) কুমিল্লা সদরের গোমতী পাড়ের এলাকায় পৃথক তিনটি অভিযানে মাটি খেকো চক্রকে তিন লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। এ সময় মাটি বহনের কাজে নিয়োজিত একটি ট্রাক্টর জব্দ করে পুলিশ হেফাজতে দেওয়া হয়।

কুমিল্লা জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, গোমতী নদীর সদর এলাকায় পাড়ের মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে এমন খবরে কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালতের তিনটি টিম অভিযানে নামে।

শুক্রবার সন্ধ্যা পৌনে ছয়টায় কুমিল্লা সদরের আমতলী এলাকায় গোমতী নদীর পাড়ের মাটি কেটে নিয়ে যাওয়ার সময় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে মাটিখেকো চক্রকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করেন কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট কানিজ ফাতেমা।

একই দিন বিকেল পাঁচটায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয় কুমিল্লা সদরের পালপাড়া এলাকায়। এসময় গোমতী নদীর পাড়ের মাটি কাটার দায়ে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন কুমিল্লা সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মৌসুমি আক্তার।

এদিন অপর অভিযানে গোমতী পাড়ের ছত্রখিল এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালতের নেতৃত্ব দেন সিনিয়র সহকারি কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট রাজীব চৌধুরী। ওই এলাকায় নদীর পাড়ের মাটি কাটার দায়ে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও মাটি বহনের কাজে নিয়োজিত একটি ট্রাক্টর জব্দ করে ছত্রখিল ফাড়ি পুলিশের হেফাজতে দেওয়া হয়।

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, অবৈধভাবে নদীর পাড়ের বালু ও মাটি খেকোদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

You cannot copy content of this page