কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় ব্যবহৃত গ্রেনেড উদ্ধার

নেকবর হোসেন।।
কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের কাশিনগর ইউনিয়নের বসন্তপুর গ্রামে একটি পুকুর পাড় থেকে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় ব্যবহৃত একটি গ্রেনেড শনিবার সকালে উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের ডাক্তার রমিজ উদ্দিনের বাড়ির সামনের পুকুর পাড়ে একই গ্রামের মোহন মিয়া সকালে ঘাস কাটতে গিয়ে গ্রেনেডটি দেখতে পায়। পরে তিনি রমিজ উদ্দিনের ছেলে শহিদকে বিষয়টি জানালে তিনি জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯-এ ফোন করলে চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে গ্রেনেডটির স্থান ঘেরাও করে রাখে।

জমির মালিক মাস্টার রমিজ উদ্দিন জানান, স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় এ স্থানে মুক্তিযোদ্ধারা গ্রেনেডসহ বিভিন্ন ভারী অস্ত্র নিয়ে পাক-হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতেন। সে সময় তিনি মুক্তিযোদ্ধাদের গাইডম্যান হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন। যুদ্ধ পরবর্তীতে মুক্তিযোদ্ধারা এ স্থানটি ত্যাগ করার সময় ভুলে এ গ্রেনেডটি মাটির নিচে চাপা পড়ে যেতে পারে।

কাশিনগর ইউপি চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন জানান, সকালে স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে জানতে পারি-বসন্তপুর গ্রামে মাস্টার রমিজ উদ্দিনের পুকুর পাড়ে একটি গ্রেনেড পাওয়া গেছে। বিষয়টি আমি স্থানীয় প্রশাসনকে অবগত করি। তিনি আরও জানান, স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় মুক্তিযোদ্ধারা ওই স্থান থেকে অস্ত্র জমা রেখে পাক-হানাদার বাহিনীর সাথে যুদ্ধে লিপ্ত হতেন।

চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শুভ রঞ্জন চাকমা জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সেনাবাহিনীর বোমারু বিশেষজ্ঞকে খবর দেওয়া হয়েছে। তারা আসলে গ্রেনেডটি অপসারণ করা হবে।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
You cannot copy content of this page