কুমিল্লার সাইফুল সচেতনতার বার্তা নিয়ে পদযাত্রা করছেন ৬৪ জেলায়

নিউজ ডেস্ক।।
রক্তদানের প্রয়োজনীয়তা, বৃক্ষরোপণের গুরুত্ব, পরিবেশ সুরক্ষায় প্লাস্টিক ব্যবহারে সচেতনতা বাড়ানোর বার্তা নিয়ে ‘পদব্রজে চলো বহুদূর’ স্লোগানে হেঁটে দেশের ৬৪ জেলা ভ্রমণে বের হয়েছেন এক অ্যাথলেট। সাইফুল ইসলাম (২৫) নামের এই তরুণ ১৪ জানুয়ারি ঢাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে যাত্রা শুরু করেন। সোমবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নিয়াজ মুহাম্মদ উচ্চবিদ্যালয় মাঠে তাঁকে স্বাগত জানানো হয়।

সাইফুল ইসলাম কুমিল্লার দেবীদ্বার এলাকার সিরাজুল ইসলাম ও করুণা বেগমের ছেলে। দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে সাইফুল দ্বিতীয়। দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে ভূগোল ও পরিবেশ বিষয়ে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন। দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে তিনি হাঁটা কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছেন।

সাইফুল বলেন, ১৪ জানুয়ারি সকাল ১০টায় ঢাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে ৬৪ জেলায় হেঁটে ভ্রমণের যাত্রা শুরু করেন। কক্সবাজার জেলায় তাঁর পদযাত্রা শেষ হবে। পঞ্চম জেলা হিসেবে তিনি সোমবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৌঁছেন। এর আগে ঢাকা থেকে শুরু করে নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, নরসিংদী, কিশোরগঞ্জ জেলা হেঁটে ভ্রমণ করেন। এ কর্মসূচিতে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন তাঁকে সহায়তা করছে। ‘ষড়জ অ্যাডভেঞ্চার’ তাঁর এই কাজে আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে।

সোমবার সকালে তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া রানার্স কমিউনিটির উপদেষ্টা অধ্যাপক দিলারা আক্তার খান। এ সময় কলেজের বাংলা বিভাগের শিক্ষক ও রানার্স কমিউনিটির অ্যাডমিন মোহাম্মদ রাজন মিয়া, আখাউড়ার শহীদ স্মৃতি সরকারি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের প্রভাষক আলী আহাদ, রানার্স কমিউনিটির সদস্য সুমন রায় ও মো. রিফাত, বাইসাইকেলের দেশের ৬৪ জেলা ভ্রমণ করা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আবু হানিফ নোমান উপস্থিত ছিলেন।

সোমবার বিকেলে জেলা শহরের শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ভাষা চত্বরে সাইফুলের সঙ্গে কথা হয়। সাইফুল বলেন, গত বছরের ১২ আগস্ট থেকে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৪০ দিনে কুমিল্লা থেকে বাংলাবান্ধা পর্যন্ত দেশের ১৬ জেলার ১ হাজার কিলোমিটার পথ হেঁটে অতিক্রম করেন। এ ছাড়া জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে গত বছরের ২০ নভেম্বর ২৪ ঘণ্টায় ঢাকার জিরো পয়েন্ট থেকে কুমিল্লা পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার হেঁটে অতিক্রম করেন।

জানতে চাইলে তিনি বলেন, তিনি আগেই হাঁটার প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। রক্তদানে উদ্ধুদ্ধকরণ, বৃক্ষরোপণ, প্লাস্টিক ব্যবহারে সচেতনতা বাড়ানোসহ স্বাস্থ্য সুরক্ষায় হাঁটার উপকারিতা তুলে ধরতেই দেশের ৬৪ জেলা হেঁটে ভ্রমণের জন্য বের হয়েছেন।

রক্তদানে কোনো ভয় নেই, গাছের অভাবে উষ্ণতা বাড়ছে এবং প্লাস্টিক যেখানে–সেখানে না ফেলে নির্ধারিত জায়গায় ফেলার বিষয়ে জেলার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এসব বার্তা পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করছেন। সাইফুল বলেন, আগামী ৩ মাসে তিনি ৪ হাজার ৫০ কিলোমিটার হেঁটে দেশের ৬৪ জেলা ভ্রমণ করবেন। পদযাত্রা শেষ হবে কক্সবাজার জেলায়। সাইফুল বলেন, ‘প্রতিদিন সকাল সাতটা থেকে আটটায় হাঁটা শুরু করি এবং সন্ধ্যায় শেষ করি।’ প্রতিদিন তিনি গড়ে ৪৫-৫০ কিলোমিটার হাঁটছেন।

গত বছর ৩৭ দিনে দেশের ৬৪ জেলার ৪ হাজার কিলোমিটার পথ বাইসাইকেলে ভ্রমণ করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া আবু হানিফ নোমান। তিনি বলেন, ‘আমার চেয়ে সাইফুলের কাজটি অনেক কঠিন। কারণ, তিনি হেঁটে ৬৪ জেলায় ভ্রমণ করবেন।’

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

You cannot copy content of this page