প্রবাসী-জাগ্রত মানবিকতার যৌথ প্রয়াসে নতুন জীবনের হাতছানি !

মাহফুজ নান্টু, কুমিল্লা।
রিক্সা চালক তাজুল ইসলাম। তার বাড়ী নগরীর দৌলতপুর এলাকায়। ভাড়ায় রিকসা চালান। প্রতিদিন যা আয় হয় তা থেকে মালিককে রিক্সা ভাড়া দিয়ে যা থাকে তা দিয়ে স্ত্রী পাঁচ সন্তান নিয়ে খেয়ে না খেয়ে দিনাতিপাত করছিলেন। মঙ্গলবার বিকেলে নতুন রিকশা পেয়ে আনন্দে আত্মহারা তাজুল ইসলাম বলেন, এবার মনে হয় বউ পোলা মাইয়া লইয়া একটু ভালো চলতাম পারমু।

আদর্শ সদর উপজেলার খেতাসার গ্রামের রিক্সা চালক মোঃ মোস্তফা মিয়াও নতুন রিক্সা পেয়েছেন। নতুন রিকসা পেয়ে তার খুশি যেন উপচে পড়ছিলো। এখন রিকসা চালিয়ে যা আয় হবে তার পুরোটা নিজের থাকবে। এই টাকা দিয়ে এখন সংসারটা ভালোই চলবে।

নগরীর কাপ্তানবাজার এলাকার আমেনা বেগম। নতুন সেলাই মেশিন পেয়ে আনন্দিত আমেনা বলেন, আমার আয়ের একটা পথ অইছে।

প্রবাসী ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জাগ্রত মানবিকতা যৌথ উদ্যোগে পনের জন অসহায়দের মাঝে নতুন রিকসা, ভ্যান ও সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়। মঙ্গলবার বিকেলে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জাগ্রত মানবিকতার সার্বিক তত্বাবধানে কুমিল্লা সদর আসনের সাংসদ বীরমুক্তিযোদ্ধা আকম বাহাউদ্দিন বাহার প্রধান অতিথী হিসেবে উপস্থিত থেকে বিতরণ কার্যক্রম সম্পন্ন করেন।

নতুন রিক্সা, ভ্যান ও মেলাই মেশিন পেয়ে আনন্দিত মানুষগুলোর জীবনে এখন নতুন জীবনের হাতছানি দিচ্ছে। সামনের দিনগুলো একটু ভালো কাটবে এ প্রত্যাশায় তারা দোয়া করেন প্রবাসী ও যাদের তত্বাবধানে তারা পেয়েছেন নতুন আয়ের পথ।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জাগ্রত মানবিকতার সাধারণ সম্পাদক তাহসিন বাহার সূচনা বলেন, বৃহত্তর কুমিল্লা জনকল্যান সমিতির ফ্রান্স করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য বিনামূল্য অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণের উদ্যোগ নেয়। তবে এখন যেহেতু করোনার প্রাদুর্ভাব কমে আসছে , তাই সম পরিমান অর্থ দিয়ে কুমিল্লা নগরীর অসহায় পনের জনের মধ্যে পাঁচজনকে রিক্সা, পাঁচজনকে ভ্যান ও পাঁচজনকে সেলাইমেশিন দেয়া হয়। এমন মহতি কাজে গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন বৃহত্তর কুমিল্লা জনকল্যান সমিতি ফ্রান্সের সভাপতি শাহিন আরমান চৌধুরী,সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আলী ভুট্টো, সাধারণ সম্পাদক আমিন খান হাজারী ও সংগঠনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক সাত্তার আলী সুমন সহ সংগঠনের সদস্যরা।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  

You cannot copy content of this page