বঙ্গমাতা জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কুমিল্লায় শিক্ষাবোর্ডের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন

নেকবর হোসেন।।
নানা আয়োজনে কুমিল্লায় শিক্ষাবোর্ডের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করেন।

সোমবার (০৭) আগস্ট সকাল ৯ ঘটিকায় বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মোঃ আবদুস ছালাম এর নেতৃত্বে বোর্ডের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ নিয়ে বঙ্গমাতা জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন বোর্ড অঙ্গনে বিভিন্ন জাতের ছাড়া রোপন করা হয়।

বৃক্ষরোপন অঙ্গনে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মো: আবদুস ছালাম। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন- মনটি ছিল সাধারণ বাঙালী মায়ের চেয়েও কোমল। কিন্তু অন্যায়ের বিপক্ষে অনেকক্ষেত্রে ছিলেন স্বামীর চেয়েও কঠিন। দুঃখ-ক্লেশ সহ্যের পরিমাণ ছিল ধারণাতীত। কখনও বাঙালীর অবিসংবাদিত নেতার স্ত্রী, কখনও প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী, কখনও রাষ্ট্রপতির স্ত্রী; জীবনের সকল পর্যায়েই তিনি নিঃস্বার্থভাবে জীবন ও যৌবনের শ্রেষ্ঠ সময় কাটিয়েছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সঙ্কটের সঙ্গী হয়ে, জীবনের চালিকাশক্তি হয়ে। আত্মকেন্দ্রিকতা বা আত্মসর্বস্বতা কখনও স্পর্শ করতে পারেনি এই নির্লোভ মহীয়সীকে। প্রচারবিমুখ এই মহীয়সী কাজ করে গেছেন নীরবে-নিভৃতে। হাসিমুখে অবর্ণনীয় কষ্ট ও যন্ত্রণা সহ্য করে অভূতপূর্ব ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছেন ব্যক্তিস্বাতন্ত্র্যবাদী এই মহীয়সী।

তিনি আর কেউ নন। তিনি হচ্ছেন বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব। বঙ্গমাতার ডাকনাম ছিল রেণু। স্বাধীনতার মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী, মহীয়সী এই বঙ্গমাতা।

এছাড়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বোর্ডের সচিব প্রফেসর নূর মোহাম্মদ, বিদ্যালয় উপ-পরিদর্শক কামরুলজ্জামান, কলেজ পরিদ্শক জহিরুল ইসলাম পটোয়ারী,পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ড.মোহাম্মদ অাসাদুজ্জামান,বিদ্যালয় পরিদর্শক প্রফসর আজহারুল ইসলাম,বোর্ড উপপরিচালক (হি. ও নি.) মোহাম্মদ ছানাউল্ল্যাই, কর্মচারী সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আব্দুল খালেদসহ প্রমুখ।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

You cannot copy content of this page