মায়ের সাথে পরকিয়ার জের; মুরাদনগরে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন

মুরাদনগর (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ
কুমিল্লার মুরাদনগরে ৪৮ঘন্টার মধ্যে চাঞ্চল্যকর হেলাল হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। ঘটনার সাথে জড়িত ৬ জনের মধ্যে ৫জন আটক হয়েছে। তাদের মধ্যে ২জন আদালতে ৬৪ দ্বারা জবানবন্দিতে হত্যার রহস্য উন্মোচন করে দায় ভার স্বীকার করেন। বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় ওসি সাদেকুর রহমান প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

ব্রিফিংয়ে ওসি বলেন, নিহত হেলাল ও আরিফ ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলো। সেই সুবাদে হেলাল প্রায় আরিফের বাড়িতে রাত্রি যাপন করতো। আরিফের অজান্তে তার মায়ের সাথে সম্পর্ক গড়ে উঠে হেলালের। প্রায় দু’মাস আগে হেলালকে তার মায়ের সাথে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলে আরিফ। এর পর থেকেই ঘনিষ্ঠ বন্ধু শত্রুতে রূপ নেয়।

গত মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) রাতে হেলালসহ আরো ৫জন বন্ধুকে নিয়ে নেশা করার উদ্দেশ্যে নবীপুর মেসার্স নিউ থ্রি স্টার ব্রিকস্ ফিল্ডে যায় আরিফ। নেশায় বুদ হওয়ার পর পকেটে থাকা খুর দিয়ে হেলালের গলায় পুচ মারে আরিফ। মাটিতে শুয়ে পরলে সাথে থাকা বন্ধুদের সহযোগিতা নিয়ে হেলালের লিঙ্গ কেটে ফেলে আরিফ। পরে লাশ ডুবায় ফেলে পালিয়ে যায় তারা।

ঘটনার সাথে জড়িত আটককৃতরা হলেন, জয়নাল হোসেনের ছেলে রাসেল মিয়া (২৪), আলী আকবরের ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেন (২৫), হিরন মিয়ার ছেলে জুয়েল মিয়া (২২), হারুন মিয়ার ছেলে সুজন মিয়া (২১) ও আবু তাহেরের ছেলে এরশাদ (২৯)। তবে ঘটনার মূল নায়ক কালাম মিয়ার ছেলে আরিফ মিয়া (২২) এখনো পলাতক। তারা সবাই উপজেলার নবীপুর পশ্চিম ইউনিয়নের নবীপুর গ্রামের বাসিন্দা।

উল্লেখ্য, গত সোমবার দুপুরে উপজেলার নবীপুর-শ্রীকাইল সড়কের নিউ থ্রি স্টার ব্রিকস্ ফিল্ডের পাশের ডোবা থেকে উপজেলার রহিমপুর গ্রামের হিরু মিয়ার ছেলে হেলাল উদ্দিন (২১) এর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সে পেশায় একজন সিএনজি চালক ছিলো।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

You cannot copy content of this page