মুরাদনগরে আচরণ বিধি না মেনেনেই ইউপি প্রার্থীরা প্রচারণা চালাচ্ছে

মনির খাঁন, মুরাদনগর উপজেলা প্রতিনিধি।
কুমিল্লার মুরাদনগরে আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রচার প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। তবে নির্বাচনী আচরন বিধি লঙ্ঘন করে অনেক প্রার্থীই প্রচার প্রচারনা চালিয়ে যেতে দেখা গেছে।

নির্বাচন আচরণবিধি অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানের দেয়াল ও যানবাহনে পোস্টার প্রচারপত্র সাঁটানো যাবে না। বেলা দুইটার আগে ও রাত আটটার পর মাইকিং করা যাবে না। কিন্তু এসবের কোনো কিছুকে তোয়াক্কা করছেন না প্রার্থীরা। তাঁরা সকাল থেকে শুরু করে গভীর রাত পর্যন্ত চালাচ্ছেন প্রচারণা। করছেন মোটরসাইকেল শোডাউন। বাসাবাড়ির দেয়ালে সাঁটানো হয়েছে পোস্টার। তাছাড়াও একাধিক প্রার্থীকে লেমেনিটিং পোস্টার টানাতেও দেখা গেছে। হোটেল-রেস্তোরাঁয় চলছে ভোটারদের খাওয়ানো।

ষষ্ঠ ধাপে আগামী ৩১ জানুয়ারি এ উপজেলার ২২টি ইউনিয়নের মধ্যে ২১টি ইউনিয়নে ইভিএমের মাধ্যমে ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মামলা সংক্রান্ত জটিলতার কারনে মুরাদনগর সদর ইউনিয়নে আপাতত নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। এ ২১টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন ১৫৭জন প্রার্থী, সদস্য পদে রয়েছে ৭৯৫জন, সংরক্ষিত সদস্য পদে রয়েছে ২১৬জন।

রোববার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার কামাল্লা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রার্থী আবুল বাশার খাঁনের সমর্থকরা সকাল থেকে মাইকিং করছেন বেলা ১২টায় তার মাইকিংয়ের অটোরিকশাটি পাওয়া এ ইউনিয়নের কামাল্লা বাজারে। অপরদিকে একই সময়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর মনোনীত হাতপাখা প্রার্থী ময়নাল হোসেনের মাইক দিয়ে অটোরিকশাযোগে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন রামচন্দ্রপুর-মুরাদনগর সড়কের নেয়ামতপুর এলাকায়। জাহাপুর ইউনিয়নের সতন্ত্র প্রার্থী আনারস প্রতীকের হুমায়ন কবিরের সমর্থকরা অটোরিকশাযোগে মাইক দিয়ে সকাল ১০টায় প্রচারণা করছেন সাতমোড়া এলাকায়।

এ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ফুটবল প্রতিকের ইউপি সদস্য প্রার্থী জহিরুল হক জহিরের সমর্থকরা বেলা ১০টায় অটোরিকশাযোগে মাইক দিয়ে প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন বাখরাবাদ কাউন্টার এলাকায়। একই ইউপির ৫নং ওয়ার্ডে বেলা ১০টায় আপেল প্রতিকের মাইক দিয়ে অটোরিকশাযোগে প্রচারনা চালাচ্ছেন মো: সালাউদ্দিনের সমর্থকরা। ধামঘর ইউনিয়নে শনিবার রাত ৮টার পরে মাইক দিয়ে প্রচারনা চালাতে দেখা গেছে ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য প্রার্থী টিওবওয়েল প্রতিকের জালাল উদ্দিনকে, মোরগ প্রতিকের মোর্শেদ খাঁনকে, ফুটবল প্রতিকের রুহুল আমিন সেন্টকেু।

এ বিষয়ে নৌকা প্রার্থী আবুল বাশার খাঁন বলেন, সকাল থেকে মাইক দিয়ে প্রচারনা আমার সমর্থকরা একা করছে না এ ইউনিয়নের সকল প্রার্থীরাই করছে। আচরন বিধির বাহিরে গিয়েই কিছুই করছি না। সবাই করছে বলে আমি করছি।

জাহাপুর ২নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী জহিরুল হক জহির বলেন, আসলে মাইকিংয়ের নির্ধারিত সময়ের বিষয়টি আমার মনে ছিলো না। এখন থেকে বেলা ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মাইকিং করব।

মুরাদনগর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাসুদ আলম সিকদার বলেন, যেসকল প্রার্থীরা আচরনবিধি মানছে না তাদেরকে ম্যাজিস্ট্রেট জরিমানা করে যাচ্ছে। তাছাড়া কেহ সু-নির্দিষ্ট অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করব।

মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার অভিষেক দাশ বলেন, প্রতিক বরাদ্ধের পর থেকে নিয়মিত ম্যাজিস্ট্রেটগন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করছেন। যে প্রার্থী অচরন লঙ্ঘ করছে তাদেরকে জরিমানা করা হচ্ছে।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

You cannot copy content of this page