লাকসাম মডেল কলেজের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ

লাকসাম প্রতিনিধি।।
মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি দিয়ে চলছে লাকসাম মডেল কলেজের কার্যক্রম। ২০১১ সালে গঠিত গভর্নিং বডির মেয়াদ ২০১৩ সালে পূর্ণ হয়। বিগত ৭ বছর নতুন কমিটি না করেই কলেজের কার্যক্রম পরিচালনা করায় জনমনে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। এ বিষয়ে ২০২০ সালে হাইকোর্টে দায়েরকৃত এক রীটের প্রেক্ষিতে কুমিল্লা বোর্ড মেয়াদোত্তির্ণ গভর্নিং বডির মাধ্যমে কলেজের কার্যক্রম পরিচালনা না করার নির্দেশনা দেয়া হয়।

জানা গেছে, ফেনী ফুলগাজী সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর বশির আহমেদ ও তাঁর সহধর্মিনী মিসেস খোদেজা বেগম লীনা ব্রাড (ইজঅউ) স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাকে ১ একর ২৬ শতক ভূমি দান করেন। ওই ভূমিতে সংস্থা কর্তৃক ১৯৯৪ সালে ব্রাড মহিলা কলেজ স্থাপিত হয়। প্রতিষ্ঠানটি ২০০৫ সালে ব্রাড সংস্থার নাম বাদ দিয়ে লাকসাম মডেল কলেজ নামে কার্যক্রম চালাতে থাকে ওই কমিটি। সর্বশেষ ২০১১ সালের ১০ই মার্চ মেজর (অবঃ) হাবিবুর রহমান মজুমদারকে সভাপতি করে কলেজের গভর্নিং বডি গঠিত হয়। ২০১৩ সালে এ কমিটির মেয়াদ শেষ হলেও অজ্ঞাত কারণে নতুন কমিটি না করে মেয়াদোত্তির্ণ কমিটি দিয়েই কলেজের কার্যক্রম চলতে থাকে।

এদিকে, কুমিল্লা বোর্ডের প্রচলিত বিধি ও প্রবিধানমালা ২০০৯ এর ৪৯ প্রবিধান মতে কমিটি গঠনের জন্য দু’দফা চিঠি দেয় বোর্ড কর্তৃপক্ষ। কিন্তু সে মতে কমিটি গঠন না করায় ২০১৫ সালে কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান এ কলেজের অধ্যক্ষকে শোকজ করেন। ৭ দিনের মধ্যে শোকজের জবাব দেয়া কথা থাকলেও আদৌ জবাব মিলেনি।

অন্যদিকে, প্রবিধানমালা ২০০৯ এর ৪৯ ধারানুযায়ী গভর্নিং বডি গঠন সংক্রান্ত হাইকোর্টের ৩২২৭/২০২০ নং রীট পিটিশনের আলোকে কুমিল্লা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের কলেজ পরিদর্শক প্রফেসর মোঃ জহিরুল ইসলাম পাটোয়ারী স্বাক্ষরিত চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, ২০১১ সালের মেয়াদোত্তির্ন গভর্র্নিং বডির মাধ্যমে কলেজের কার্যক্রম পরিচালনা না করার জন্য এবং রীট পিটিশন দ্রুত নিস্পত্তির ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হলো।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১