কুমিল্লায় একশত বোতল ফেনসিডিল বহনের দায়ে যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

তাপস চন্দ্র সরকার, কুমিল্লা।।
কুমিল্লায় একশত বোতল ফেন্সিডিল বিক্রয়ের উদ্দ্যেশে নিজ হেফাজতে রাখার দায়ে মোঃ বিল্লাল হোসেন নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন কুমিল্লার আদালত। বুধবার (২৪ মে) বিকেলে এ রায় দেন কুমিল্লার বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৪র্থ আদালতের বিচারক বেগম সেলিনা আক্তার।

মামলার বিবরণে জানা যায়- ২০১৬ সালের ৪ঠা আগস্ট বিকেল পৌনে ৬টায় কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখার এস.আই মোঃ শরিফুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ কোতয়ালী মডেল থানা এলাকায় মাদকদ্রব্য উদ্ধার ও বিশেষ অভিযান করাকালীন সময়ে শাহপুর সীমান্তবর্তী এলাকা হইতে ফেন্সিডিল বহন করে কুমিল্লা শহরে নেওয়ার সময় বিজিবি চেকপোস্টগামী রাস্তায় মোসলেম মিয়ার জমি সংলগ্ন পাকা রাস্তার উপর পৌঁছামাত্র আসামি মোঃ বিল্লাল হোসেনকে ধৃত করিয়া তাহার মাথায় থাকা প্লাষ্টিকের বস্তা তল্লাশি করিয়া ১০০ বোতল ফেন্সিডিল জব্দ করেন।

এ ব্যাপারে কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখার এস.আই মোঃ শরিফুল ইসলাম বাদী হয়ে ধৃত আসামি মোঃ বিল্লাল হোসেন ও পলাতক আসামি খোরশেদ (৪২) এর বিরুদ্ধে ১৯৯০ সনের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন (সংশোধিত/২০০৪) এর ১৯ (১) এর টেবিল ৩ (ক)/২৫ ধারার বিধানমতে নিয়মিত মামলা রুজু করিলে তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোহাম্মদ ইউনুছ তদন্তপূর্বক আসামি মোঃ বিল্লাল হোসেনের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় ২০১৬ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন (যাহার অভিযোগপত্র নং- ৮৩৮)।

পরবর্তীতে মামলাটি বিচারে আসিলে ২০১৮ সালের ১০ সেপ্টেম্বর উল্লেখিত আসামির বিরুদ্ধে চার্জগঠন করেন। তৎপর রাষ্ট্রপক্ষে মানীত ১৪জন সাক্ষীর মধ্যে ০৪জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে যুক্তিতর্ক শুনানী অন্তে আসামির বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আসমি মোঃ বিল্লাল হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও পাঁচ মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেন বিজ্ঞ আদালত।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মোঃ বিল্লাল হোসেন হলেন কুমিল্লা কোতয়ালী থানাধীন কটকবাজার @ রাজমঙ্গলপুর গ্রামের আবু তাহের এর ছেলে। রায় ঘোষণাকালে আসামি কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন- অতিরিক্ত পিপি এড. মোঃ মজিবুর রহমান বাহার এবং আসামিপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন- এড. মোঃ মাহাবুবুল আলম মিন্টু।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

You cannot copy content of this page