কুমিল্লায় মাদক কারবারির হাতে স্ত্রীকে তুলে দিলেন স্বামী, পালাক্রমে ধর্ষণের শিকার

কুমিল্লা প্রতিনিধি।।
কুমিল্লায় মাদকের টাকা জোগাড় করতে মাদকাসক্ত এক ব্যক্তি তাঁর স্ত্রীকে মাদক কারবারির হাতে তুলে দিয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। পরে ওই গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হলে পুলিশ অভিযুক্ত তিনজনকে গ্রেপ্তার করে। আজ শনিবার দুপুরে গ্রেপ্তার তিনজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার রাতে ভুক্তভোগী ওই নারীর মা বাদী হয়ে বরুড়া থানায় মামলাটি দায়ের করেন। জেলার বরুড়া উপজেলায় চাঞ্চল্যকর এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াজ উদ্দিন চৌধুরী।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন বরুড়া উপজেলার শাকপুর গ্রামের মাদক কারবারি নুরুল ইসলাম নুরু, তাঁর সহযোগী মনির হোসেন ও মাহিন উদ্দিন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা বলছে, গ্রেপ্তার নুরুর কাছে নিয়মিত মাদক সেবন করতেন ভুক্তভোগীর স্বামী। মাদকের টাকা বাকি পড়ায় ও পুনরায় মাদক সেবনের টাকার জন্য গত বুধবার স্ত্রীকে (দুই সন্তানের মা) কৌশলে মাদক কারবারি নুরুর হাতে তুলে দেন ভুক্তভোগীর স্বামী। এরপর নিজে ও পরবর্তী সময় দুজন সঙ্গীকে নিয়ে ওই নারীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে নুরুল ইসলাম নুরু। পরে বিষয়টি জানতে পেরে ভুক্তভোগীর বাবার বাড়ির লোকজন গতকাল রাতে থানায় গিয়ে অভিযোগ করেন। পরে রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে ওই তিনজনকে গ্রেপ্তার করে।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর চাচা বলেন, ‘ছয় বছর আগে আমার ভাতিজির বিয়ে হয়। আমার ভাতিজি জামাই একজন মাদকাসক্ত। মাদকের টাকার জন্য সে মাদক কারবারির কাছে আমার ভাতিজিকে তুলে দিয়েছিল। পরে সে ধর্ষণের শিকার হয়।’

বরুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াজ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘মাদকের টাকার জন্য স্বামী তার স্ত্রীকে মাদক কারবারির হাতে তুলে দিলে ওই গৃহবধূ কয়েক দফা ধর্ষণের শিকার হন। এ বিষয়ে থানায় মামলা হলে শুক্রবার রাতে বরুড়া থানা-পুলিশ তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করে।’

ওসি আরও বলেন, ‘শনিবার দুপুরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। ভুক্তভোগী ওই নারীকে ডাক্তারি পরীক্ষা জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

You cannot copy content of this page