কুমিল্লায় ভাই-ভাবিকে হত্যার চেষ্টা; প্রধান আসামীসহ গ্রেফতার ২

নেকবর হোসেন।।
কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার গল্লাই ইউনিয়নের কংগাই গ্রামে ভাই-ভাবির চোখে মরিচের গুড়া ছুড়ে এলাপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে এক পাষন্ড ছোট ভাই ও তার পরিবারের সদস্যরা। ওই ঘটনায় আহতদের ছেলে সজীব চন্দ্র দাস বাদি হয়ে চান্দিনা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাতে ওই মামলার প্রধান আসামী কংগাই গ্রামের মৃত চিত্ত রঞ্জন দাসের ছেলে নারায়ণ চন্দ্র দাস (৪৫) এবং তার ভাই শ্যামল চন্দ্র দাস (৩৫) কে গ্রেফতার করে চান্দিনা থানা পুলিশ।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) তাদের কুমিল্লা আদালতের মাধ্যমে কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

জানাযায়, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলার গল্লাই ইউনিয়নের কংগাই গ্রামে বড় ভাইয়ের বসত ঘরে হামলা চালায় নারায়ণ চন্দ্র দাস, তার স্ত্রী ও তাদের দুই ছেলে সহ সঙ্গীরা। এসময় নারায়ণ চন্দ্র দাস তার আপন বড় ভাই দুলাল চন্দ্র দাস (৫০) ও ভাবী মলিনা রানী দাস (৪০) এর চোখে মরিচের গুড়া ছুড়ে মারে। পরে এলোপাতারি কুপিয়ে দুলাল চন্দ্র দাস ও মলিনা রানী দাসকে গুরুতর আহত করে। মলিনা রানী দাসের ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুল কেটে মাটিতে পরে যায়। অপর হাতের ২টি আঙ্গুলও নড়বড়ে হয়ে যায়। দুলাল চন্দ্র দাসের হাতে মারাত্মক জখম হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চান্দিনা থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, প্রাথমিক তদন্তে কুপিয়ে জখম এর সত্যতা পাওয়া গেছে। মামলার প্রেক্ষিতে আমরা প্রধান আসামীসহ ২জনকে গ্রেফতার করে কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রেরণ করি।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

You cannot copy content of this page