কুসিক কাউন্সিলর সাত্তারকে দেলোয়ার হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখানোর আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক।।
জিল্লুর রহমান চৌধুরী হত্যা মামলায় ৩ দিনের রিমান্ডের পর কুমিল্লা সিটি কাউন্সিলর আবদুস সাত্তারকে এবার ছাত্রলীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন করেছে পিবিআই। বৃহস্পতিবার দুপুরে কুমিল্লার ৯ নম্বর আমলি আদালতে ওই আবেদন করেন দেলোয়ার হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই কুমিল্লার পরিদর্শক মো.মতিউর রহমান।

গত ২৬ জানুয়ারি রাজধানীর শাহবাগ এলাকা থেকে নগরীর ২৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাত্তারকে কুমিল্লার চৌয়ারা এলাকায় আরেক আলোচিত জিল্লু রহমান চৌধুরী হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার করে পিবিআই। সাত্তার ওই মামলার দুই নম্বর আসামি। আর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক প্রভাষক দেলোয়ার হোসেন হত্যাকান্ডের মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে উল্লেখ করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে কিলিং মিশনে অংশ নেয়া আসামী আনোয়ার হোসেন।

এদিকে ২০১৮ সালের ২৬ নভেম্বর রাতে নগরীর ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের শামবক্সি (ভল­বপুর) এলাকায় সন্ত্রাসীরা মোটরসাইকেলে করে এসে ছাত্রলীগ নেতা দেলোয়ারকে মাথায় গুলি করে হত্যা করে। ঘটনার পরদিন নিহতের ভাই শাহাদাত হোসেন নয়ন বাদী হয়ে সদর দক্ষিণ মডেল থানায় মামলা করেন। মামলায় ওই গ্রামের রেজাউল করিম ও কাউছারসহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করা হয়। সদর দক্ষিন মডেল থানার পর বর্তমানে মামলাটি তদন্ত করছে পিবিআই কুমিল্লা। গত বছরের (২০২০ সালের) ২৪ সেপ্টেম্বর পিবিআইয়ের সদস্যরা এ মামলায় সদর দক্ষিন থানার নোয়াগ্রাম গ্রামের সফিকুর রহমান রহমানের ছেলে আনোয়ার হোসেনকে গ্রেপ্তার করে। পরে আনোয়ার আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে জানায়, দেলোয়ারকে হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী কাউন্সিলর আবদুস সাত্তার। তার পরিকল্পনায় দেলোয়ারকে খুন করা হয়েছে।

পিবিআই’র পরিদর্শক মো.মতিউর রহমান বলেন, কাউন্সিলর সাত্তার জিল্লু হত্যা মামলায় ৩ দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে রয়েছে। জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী কাউন্সিলর সাত্তার। দেলোয়ার হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখানোর জন্য আজকে (বৃহস্পতিবার) আদালতে আবেদন জমা দিয়েছি। আদালত আবেদন মঞ্জুর করলে, পরে তাকে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডের জন্য আবেদন করবো।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

You cannot copy content of this page