মুরাদনগরে ভূমি কর্মকর্তাকে লাঞ্চিতের ঘটনায় চার জনের নামে মামলা

মনির খাঁন, মুরাদনগর উপজেলা প্রতিনিধি।
কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় অবৈধ ভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে মাটি উত্তোলনে বাধাদেওয়ায় ইউনিয়ন ভূমি অফিসের উপ-সহকারী কর্মকতার সাংবাদিকসহ উপস্থিত লোকজনদের লাঞ্চিত ও ব্যাবহত্য যানবাহন পানিতে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে একদল ভূমিদস্যু ও অবৈধ ভাবে মাটি উত্তোলকারি সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় উপজেলার শ্রীকাইল ইউনিয়ন ভূমি অফিসের উপ-সহকারী কর্মকতা মো: সফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে বাঙ্গরা বাজার থানায় চার জনের নাম উল্লেখ করে একটি অভিযোগ দাখিল করেছেন।
গত সোমবার বিকেলে উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানাধীন শ্রীকাইল ইউনিয়নের চন্দনাইল গ্রামের মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পাশে লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনাটি ঘটে।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চন্দনাইল গ্রামে চন্দনাইল গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলী (হোসেন) এর ছেলে শাহআলম(৪৮), মানিক(৪০), মাসুদ(৩৫) ও উত্তর পেন্নই গ্রামের মৃত আবুল কালামের ছেলে তাজুল ইসলামসহ(৪৫) একদল ভূমিদস্যু ও অবৈধ ভাবে মাটি উত্তোলকারি সিন্ডিকেট গড়ে তোলে। প্রথমে সামান্য একটু জমি ক্রয় করে।

পরে সেই কৃষি জমি ও আশেপাশের জমি থেকে প্রভাব খাটিয়ে অবৈধ ড্রেজারের মাধ্যমে মাটি উত্তোলন করে আসছে। এরই সূত্র ধরে গত সোমবার বিকেলে চন্দনাইল গ্রামে যায় শ্রীকাইল ইউনিয়নের ভূমি অফিসের উপ-সহকারী কর্মকতা মো: সফিকুল ইসলাম এর নেতৃত্বে উক্ত অফিসের লোকজন ও স্থানীয় কিছু সাংবাদিকদের নিয়ে ঘটনার স্থলে গিয়ে ড্রেজার মেশিন বন্ধ করার অনুরোধ করে। এতে অভিযোক্তরাসহ একদল সংঘবদ্ধ ভূমিদস্যু ও অবৈধ ভাবে মাটি উত্তোলকারি সিন্ডিকেটের সদস্যরা সরকারী কাজে বাধা প্রদান করে এবং উপস্থিত সরকারী কর্মকতার্-কর্মচারী ও সাংবাদিকদের লাঞ্চিত করে। নানা রকম ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদান করে এবং ব্যবহিত সিএনজি চালিত অটোরিক্সা ও মটরসাইকেল পানিতে ফেলে দেয়।

সহকারী কমিষনার (ভূমি) সুমাইয়া মমিন বলেন, বিষয়টি উধ্বর্তন কতৃপক্ষকে জানানো হয়েছে এবং সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশকে বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনিয় ব্যাবস্থা গ্রহনের অনুরোধ করা হয়েছে।

বাঙ্গরা বাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতার্ (ওসি) কামরুজ্জামান বলেন, সরকারী কাজে বাধা প্রধান বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনিয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

You cannot copy content of this page