কুমিল্লায় বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে ট্রাক চাপায় প্রাণ গেল দাদি-নাতির

দেবিদ্বার প্রতিনিধি।।
কুমিল্লা-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের দেবিদ্বারে ট্রাকের ধাক্কায় স্কুল শিক্ষিকাসহ একই পরিবারের দুই জন নিহত ও চার জন আহত হয়েছে। হতাহতদের মধ্যে তাঁদের বহনকারী সিএনজি অটোরিকশার চালক ছাড়া বাকি পাঁচজনই একই পরিবারের। দেবিদ্বার পৌর এলাকার বারেরা গ্রামের নিজাম উদ্দিন ফকির বাড়ির বাসিন্দা তাঁরা।

স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার দুপুর ১টায় একই পরিবারের পাঁচজন সিএনজি অটোরিকশা যোগে উপজেলার বড়শালঘর গ্রামে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলেন। কুমিল্লা-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের দেবিদ্বার পৌর এলাকার সাইলচর এলাকায় পেছন থেকে দ্রুতগামী একটি ট্রাক ধাক্কা দিলে অটোরিকশাটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। এতে চালক ও পাঁচ যাত্রী মারাত্মক আহত হন। তাঁদের প্রথমে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কুমেক হাসপাতালে নেওয়ার পর হাজেরা বেগম ও আবিরের মৃত্যু হয়।

হাজেরা বেগম (৪০) দেবিদ্বার পৌর এলাকার বারেরা গ্রামের নিজাম উদ্দিন ফকির বাড়ির বজলুর রহমানের স্ত্রী এবং উপজেলার ধামতী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। আবির (৫) তাঁর নাতি।

আহতরা হলেন—হাজেরা বেগমের স্বামী বজলুর রহমান (৬৫), মেয়ে মনিরা আক্তার (১৪), নাতি আশিক (৭) ও সিএনজি অটোরিকশা চালক দেবিদ্বার পৌর এলাকার উত্তর ভিংলাবাড়ি গ্রামের আব্দুল আলীমের ছেলে শান্ত (২০)। শান্তকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বিকেলে বজলুর রহমানকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ ব্যাপারে মীরপুর হাইওয়ে পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মো. কামাল উদ্দিন বলেন, ‘আমাদের পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত নিহত কাউকে পায়নি। দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়েও কোনো তথ্য নিতে পারেনি। দুর্ঘটনায় কবলিত সিএনজি অটোরিকশা ও ট্রাকটি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।’

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

You cannot copy content of this page