কুমিল্লায় সালিশ বৈঠকে হামলা; আইসিইউতে মৃত্যুর প্রহর গুনছে যুবক, মুল আসমী আটক

মারুফ আহমেদ, কুমিল্লা
কুমিল্লায় বাড়ীর সীমানা প্রচীর নির্মাণকে কেন্দ্র করে গ্রাম্য সর্দার-মাতাব্বরদের উপস্থিতিতে সালিশ বৈঠকে হামলা চালিয়েছে প্রাতিপক্ষের লোকজন।

হামলায় সাইফুল ইসলাম নামে এক যুবক মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়ে বর্তমানে ঢাকার একটি হাসপাতালের আইসিইউতে মৃত্যুর প্রহর গুনছে। ইতোমধ্যে সাইফুলের ডান হাত ও ডান পা অবশ হয়ে প্যারলাইস হয়ে গেছে।

এ ঘটনায় সাইফুলের বড় ভাই কামরুজ্জামান বাদী হয়ে ৬জন নামীয় ও অজ্ঞাত ৪/৫ জনকে আসামী করে কোতয়ালী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। রোববার রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে মুল আসামীকে গ্রেফতার করেছে।
মামলার বিবরণে জানা যায়, কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার কালিরবাজার ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামের ইয়ার ওরফে এয়ার আহমেদ, মোঃ মাসুম, সুলতান আহমেদ, নজির, হাছিনা আক্তার, আরিফুল ইসলাম এর সাথে একই বাড়ীর মৃত হাজী রমিজ উদ্দিনের ছেলে মোঃ কামরুজ্জামান এর ভূমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো।

উভয়ের সম্পত্তির হিস্যায় আগে থেকেই সীমানা নির্ধারিত ছিল। সম্প্রতি কামরুজ্জামান সীমানা বাউন্ডারী দেয়াল দেওয়ার কাজ শুরু করলে প্রতিপক্ষ কাজ বন্ধ রাখতে বলে। এতে কামরুজ্জামান কাজ বন্ধ করে দেয়।

বিষয়টি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের মাধ্যমে মিমাংসার উদ্যোগ নিয়ে ১৯ ফেব্রুয়ারী শনিবার বিকেলে স্থানীয় ইউপি সদস্য রাসেলসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিদের উপস্থিতিতে এক সালিশ বৈঠকের আয়োজন করা হয়।
সাহেব-সর্দারগন সালিশে বসে উভয়ের বক্তব্য শুনে এবং সীমানা পর্যালোচনা করা কালে সালিশ বৈঠকে প্রতিপক্ষের লোকজন অতর্কিত হামলা চালায়।

হামলাকারীরা সাইফুলের মাথায় আঘাত করলে তার নাক ও মুখ দিয়ে রক্তক্ষরন শুরু হয়ে অজ্ঞান হয়ে যায়। তাৎক্ষনিক ভাবে চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়া গেলে সেখানে তার অবস্থা আশংকাজনক দেখে ডাক্তার তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন।

পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেওয়ার আগে কুমিল্লা ট্রমা সেন্টার (প্রাঃ) হাসপাতালে মাথার সিটিস্ক্যান করানো হয়। পরবর্তীতে ঢাকাস্থ গেন্ডারিয়া এলাকার আজগর আলী (প্রাঃ) হাসপাতালে নিয়া যাওয়া হয়। বর্তমানে সাইফুল ওই হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।

হাসপাতালের ডাক্তার জানায়, সাইফুলের মাথার খুলিতে আঘাতে কারনে খুলির হাঁড় ভাঙ্গে হাড়ের ভাঙ্গা অংশে মস্তিষ্কে টিস্যু ছিড়ে মস্তিষ্কে আঘাত করেছে। সাইফুলের মাথায় গুরুতর জখম হওয়ায় তার ডান হাত ও ডান পা অবশ হয়ে প্যারালাইস হয়ে গেছে, তার অবস্থা সংকটপন্ন।

এ ঘটনায় কামরুজ্জামান বাদী হয়ে উপরোক্ত অভিযুক্তদের নামে কোতয়ালী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এ বিষয়ে ক্যান্টনমেন্ট পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এস আই) ওমর ফারুক জানান, রোববার রাতে মামলা দায়ের পর অভিযান চালিয়ে মুল আসামী ইয়ার ওরফে এয়ার আহমেদ’কে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকী আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  

You cannot copy content of this page