কুমিল্লায় ২৪ মামলার আসামিকে কুপিয়ে হত্যা

এলাকায় মাদক কারবার নিয়ে প্রতিপক্ষের সঙ্গে বিরোধ চলছিল নাদিমের। কয়েকদিন আগে এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান চালায় র‍্যাবের একটি দল। বিরোধীপক্ষের ধারণা নাদিমের তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়েছিল র‍্যাব। এ নিয়ে বিরোধীদের সঙ্গে নাদিমের সম্পর্কের অবনতি ঘটে।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার সোয়াগাজী পশ্চিম জোড়কানন ইউনিয়নে আধিপাত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে একজন খুন হয়েছেন। উপজেলার বাটপাড়া গ্রামে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় এই ঘটনা ঘটে।

নিহত যুবকের নাম নাদিম। ৩৫ বছরের নাদিম বাটপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এলাকায় মাদক কারবার নিয়ে প্রতিপক্ষের সঙ্গে বিরোধ চলছিল নাদিমের। কয়েকদিন আগে এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান চালায় র‍্যাবের একটি দল। বিরোধীপক্ষের ধারণা নাদিমের তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়েছিল র‍্যাব। এ নিয়ে বিরোধীদের সঙ্গে নাদিমের সম্পর্কের অবনতি ঘটে। এরই জেরে শুক্রবার সকাল সাড়ে নয়টায় নাদিমের বাসায় ঢুকে তাকে উপর্যুপরি কোপায় ১০ থেকে ১৫ জন। এসময় আহত হন নাদিমের পরিবারের সদস্যরা। তাদের কুমিল্লা মেডিক্যাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃত্যু হয় নাদিমের।

খবর পেয়ে সদর দক্ষিণ মডেল থানার চার ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে হামলাকারীদের ধাওয়া করে। পরে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে একই গ্রামের ৩৮ বছরের আবদুল মান্নানকে আটক করা হয়। পুলিশ বলছে, নাদিমের বিরুদ্ধে সদর দক্ষিসহ বিভিন্ন থানায় খুন, ডাকাতি ও মাদকের কমপক্ষে ২৪টি মামলা হয়েছে।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দেবাশীষ চৌধুরী জানান, স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে ছিলাম। ওই সময় খবর পাই আধিপাত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে খুনের ঘটনা ঘটেছে। আমি ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনি।

‘খুনের ঘটনায় ওই এলাকার ফারুক, এরশাদ, রুবেল, রিপন, খোকা, আলামিন, বেলালসহ ৭-৮ জন জড়িত ছিল বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি। মরদেহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রয়েছে। আমি সেখানে যাচ্ছি।

ওসি দেবাশীষ চৌধুরী আরও বলেন,এখনো নিহতের পরিবার থেকে অভিযোগ পাইনি। পরিবার মামলা করলে অবশ্যই মামলা নেয়া হবে। না হলে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে।

সূত্র- NewsBangla24. com

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮  

You cannot copy content of this page