চৌদ্দগ্রামে রেজিস্ট্রেশন করেও টিকা দিতে পারেনি

মনোয়ার হোসেন, চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি:
কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রামের কাশিনগর ইউনিয়নের জন্য ৬০০ টিকা বরাদ্দ থাকলেও টিকা নিতে এসেছেন প্রায় ৩০০০ জনের উপরে। টিকা না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। আবার টিকা পেয়ে অনেকেই খুশি। সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৩ টা পর্যন্ত টিকা প্রদানের সময়সীমা নির্ধারণ করলেও বেলা ১২ টার আগেই সকল টিকা প্রদান করা শেষ হয়ে যায়।

শনিবার সকাল ১১ টায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কাশিনগর ইউনিয়ন পরিষদে মহিলা এবং কাশিনগর বি এম উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পুরুষদের টিকা প্রদানের বুথে লম্বা লাইন। সকাল ৯ টায় টিকাগ্রহীতার তেমন চাপ না থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে চাপ বাড়ে বলে জানা গেছে।টিকা প্রদানের ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধী সহ তুলনামূলক অধিক বয়সী ব্যাক্তিদের অগ্রাধিকার দিতে দেখা গেছে।

টিকা না নিতে পারা ষাটোর্ধ বয়সী চাঁন মিয়া নামে এক ব্যাক্তি জানান, “টিকা নিতে আসছি কিন্তু টিকা নিতে পারিনি। টিকা নাকি শেষ হয়ে গেছে”।

আরেক ব্যাক্তি জানান, “২০০ টাকা গাড়ী ভাড়া দিয়ে টিকা নিতে এসেছি। এখন নাকি টিকা শেষ। কবে টিকা দিবে তার কোনো নিশ্চয়তা নাই”।

ইউপি চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন জানান, “কাশিনগরের মানুষ খুবই উৎসবমূখর ভাবে টিকা নিয়েছেন। প্রথম ধাপে পন্ঞান্নোর্ধ মানুষকে টিকা প্রদান করা হয়েছে”।

টিকা না পাওয়ার বিষয়ে চেয়ারম্যান বলেন, “প্রথম ধাপে ৬০০ টিকা বরাদ্দ ছিলো। তাই অনেকেই টিকা পায় নি।তবে আমি তাদের আশ্বস্ত করেছি যে,যখনি সরকার গণহারে টিকা প্রদান করবে।তখন ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামের সকলকে টিকা প্রদান করা হবে”।

চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: হাসিবুর রহমান জানান, “চৌদ্দগ্রামে ১৩ টি ইউনিয়ন এবং ১ টি পৌরসভা নিয়ে ১৪ টি কেন্দ্রে ৬০০ টি করে সর্বমোট ৮৪০০ জনকে টিকার আওতায় আনা হচ্ছে। আমাদের টিকার ক্রাইসিস আছে।আমাদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণ টিকা মজুদ থাকলে আরো বেশী মানুষকে টিকার আওতায় আনতে পারতাম। তবে খুব শিগ্রই সকলকে টিকা দেয়া হবে। চৌদ্দগ্রামে টিকা গ্রহণের জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন ৯৮ হাজার ৫২ জন “।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

You cannot copy content of this page