বরুড়ায় পরিবহন থেকে অতিরিক্ত চাঁদা ও জিবি আদায়ের অভিযোগ

বরুড়া প্রতিনিধিঃ
কুমিল্লার বরুড়া পৌরসদর বাজারে বাস,সিএনজি, অটো থেকে অতিরিক্ত চাঁদা ও জিবি আদায় করছে ক্ষমতাশালী ব্যাক্তিরা।আর এই টাকা দিয়ে কি হয়, কোথায় যায় কেউ সঠিক জানে না।বরুড়া বাজারে চাঁদা ও জিবির টাকা দিতে অতিষ্ঠ পরিবহন শ্রমিকরা। বরুড়া বাজারে দৈনিক বাস ১০০-১৫০ টাকা, সিএনজি ১০০-১২০ টাকা, অটো ৮০-১০০ টাকা চাঁদা দিতে হয়।

সরেজমিনে বরুড়া পৌর শহর বাজার ঘুরে দেখা যায় বরুড়া উপজেলার ইউনিয়ন পর্যায়ের সকল যানবাহন গুলোকে চাঁদা দিতে হয়,চাঁদা না দিলে গাড়ির চাবি আটক, ও অশ্লীল আচরণ করে। গোপন সূত্রে জানা যায় বরুড়া পৌরশহরের বাজার এক ধরনের প্রভাবশালী ব্যাক্তিরা ক্ষমতা দেখিয়ে সিএনজি অটো স্ট্যান্ড গুলো তাদের আওতায় নিয়ে আসে। তাদের লোকেরা দৈনিক যানবাহন থেকে চাঁদা আদায় করে।বরুড়া উপজেলা প্রশাসন নিরব ভূমিকা পালন করছে

গতকাল লালমাই থেকে একটি সিএনজি করে বরুড়া বাজার হসপিটাল রোডে আসা মাত্র পুলিশ জিবি নামে এক ব্যাক্তি গাড়ির সামনে হাজির তখন সিএনজি চালক পুলিশ জিবি নামে ১০০ টাকা দিলো, তারপরে বরুড়া বাজারের বরুড়া পৌর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাওয়া মাত্র পৌর টেক্স নামে এক ব্যাক্তি গাড়িকে আটক করে, তখন সিএনজি চালক ২০ টাকা দিল, তারপরে বাজারে জিরো পয়েন্টে যাওয়া মাত্র জিবি ও চাঁদার জন্য হাজির এক ব্যাক্তি, তখন চালক বলল পরে দিবে,তখন চাঁদা নেয়ার ব্যাক্তি গাড়ির চাবি আটক করে, অশ্লীল আচরন করে, আবার মারধর করে, পরে সে জিবি বা চাদাঁ দিল ৮০ টাকা, পরে আবার আরেক ব্যাক্তি বাজার খাজনা নামে টাকা দিতে, তখন সিএনজি চালক ১০০ টাকা দিল।বরুড়া বাজারে যেন টাকা ছাড়া কিছু বুজে না।

এই বিষয়ে বরুড়া পৌর সদর বাজারে একজন সিএনজি চালক নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তিনি কুমিল্লা নিউজ কে জানান বরুড়া বাজারে চাঁদা ও জিবি দৈনিক প্রতি সিএনজি কে ১৫০-২০০ টাকা দিতে। গাড়ি চালিয়ে শান্তি পাই না। কোনদিন ইনকাম কম হলেও চাঁদা মাফ নাই,বরুড়ায় ক্ষমতাশালী ব্যাক্তিরা অরজকতা চালিয়ে যাচ্ছে। এই বিষয়ে কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছে বরুড়ার সাধারন পরিবহন শ্রমিকরা।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

You cannot copy content of this page