বুড়িচংয়ে ৫শ প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ; বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় বিজয়ী ৫

মোঃ জহিরুল হক বাবু।।
আসন্ন কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে ৫শ’ প্রর্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। রোববার সকাল থেকে দিনব্যাপী প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক দেয়া হয়।

এদিকে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিলো শনিবার। ওই দিন বিকেল ৫ টা পর্যন্ত ২০ চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ৭৫ প্রার্থী তাদের মনোনয়ন প্রত্যহার করে নেয়।

ইউপি নির্বাচন কে সামনে রেখে ৯ টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ও সাধারণ সদস্য পদে ৫৮৪ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলো। যার মধ্যে চেয়ারম্যান ৮২, সংরক্ষিত নারী সদস্য ৯৯ ও সাধারণ সদস্য ৪০৩ জন। যাচাই-বাছাই শেষে বাকশীমুল ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ খসরুল আলমের মনোনয়ন বাতিল করা হয়।

এছাড়া রাজাপুর ইউনিয়নে সংরক্ষিত নারী সদস্য এক জন, সাধারণ সদস্য পদে এক জন, বাকশীমুল ইউনিয়নে সংরক্ষিত নারী সদস্য এক জন, সাধারণ সদস্য পদে এক জন, ময়নামতি ইউনিয়নে সাধারণ সদস্য পদে এক জন, মোকাম ইউনিয়নে সাধারণ সদস্য পদে এক জন ও ভারেল্লা উত্তর ইউনিয়নে সাধারণ সদস্য পদে এক জনের মনোনয়ন বাতিল করা হয়।

পরবর্তীতে চার প্রার্থী আপিলের মাধ্যমে তাদের প্রার্থীতা ফিরে পায়।

ফলে ৫৮০ জন প্রার্থীর মধ্যে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করেছে মোট চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ২০ জন, সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার প্রার্থী ১২ জন এবং সাধারণ সদস্য প্রত্যাহার করেছে ৪৩ জন।

এর মধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় একজন ভারেল্লা উত্তর থেকে সাধারণ সদস্য, সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার ৪ জন নির্বাচিত হন।

বুড়িচং উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ দেলোয়ার হোসেন জানান, আগামী ৭ ফেব্রুয়ারী বুড়িচং উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ২২ জানুয়ারি ছিল সকল প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। এতে মোট ২০ জন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে। এছাড়া সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার প্রার্থী ১২ জন এবং সাধারণ সদস্য ৪৩ জন মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নেন।

এর মধ্যে ভারেল্লা দক্ষিণ ইউনিয়ন এর স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোঃ ফারুক আহমেদ, আব্দুল বারেক, মোঃ শওকত হোসেন, বুড়িচং সদরের মোঃ জহিরুল ইসলাম, বাকশীমূল ইউনিয়ন এর ইয়াসমিন আক্তার, আনোয়ারুল কিবরিয়া, এমদাদুল হক, মফিজুল ইসলাম, ভারেল্লা উত্তর ইউনিয়ন থেকে এম মজিবুর রহমান ডায়মন্ড। অপর দিকে পীরযাত্রাপুর ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ২ জন, রাজাপুর ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ৮ জন এর মধ্যে এড. আবুল হোসেন জুয়েল, সাংবাদিক আবুল হোসেন ও শরীফুল ইসলাম সোহেল তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন।

এখন নির্বাচনী মাঠে লড়বেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ৬১ জন, সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার প্রার্থী ৮২ জন এবং সাধারণ সদস্য ৩৫৭ জন। রোববার ৯ ইউনিয়নের ৫শ’ জন প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। প্রতীক বরাদ্ধের পর থেকে প্রার্থীরা প্রচার প্রচারনা চালাতে পারবেন।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

You cannot copy content of this page