মাকে হত্যা করে বাবা জেলে, শিশু দুটি’র পাশে দাড়ালো কুমিল্লা জেলা পুলিশ

মোঃ জহিরুল হক বাবু।।
কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার হালগাও গ্রামের লোকমান হোসেন তার স্ত্রী ও শ্বাশুড়িকে নির্মমভাবে হত্যা করে। ঘটনার পরপরই লোকমান আটক হয়, বর্তমানে সে কুমিল্লা কারাগারে। ঘাতক লোকমান ও তার স্ত্রীর রেখে যাওয়া বড় মেয়ে রিমি’র বয়স ৫ বছর ও ছোট ছেলে আরাফাতের বয়স ৯ মাস। মা বাবাকে হারিয়ে শিশু দুটি এতিম হয়ে পরে। শিশু দুটি বর্তমানে চাচি আকলিমা আক্তারের হেফাজতে আছে। এতিম এ দুটি শিশুর পাশে দাড়ালেন কুমিল্লা জেলা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে কুমিল্লা জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ সোহান সরকার, বুড়িচং থানা অফিসার ইনচার্জ মোজাম্মেল হক পিপিএম শিশু দুটির জন্য, জামা, জুতা, খেলনা, গুড়োদুধ, বিস্কিট, চাল, ডাল, তেল, পিয়াজ সহ বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্য নিয়ে শিশুটির বাড়ীতে হাজির হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ সোহান সরকার বলেন, কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ পিপিএম (বার) মহোদয়ের নির্দেশক্রমে জেলা পুলিশের পক্ষ হতে অসহায় শিশু দুটির জন্য উপহার সামগ্রী ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি নিয়ে এসেছি আগামী দিনগুলোতে শিশু দুটির পাশে থাকবে কুমিল্লা জেলা পুলিশ।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আজিজুল বারি নয়ন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক, মোকাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল হক মুন্সি, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবদুস ছালামসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ১০ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যায় পারিবারিক কলহর জের ধরে লোকমান হোসেন তাঁর স্ত্রী ও শ্বাশুড়িকে কুপিয়ে হত্যা করে।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

You cannot copy content of this page