মুরাদনগরে চার যুবককে কুপিয়ে জখম, বাড়িঘর ভাঙ্গচুরের অভিযোগ

মনির হোসাইন।।
কুমিল্লার মুরাদনগরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এবং মাদক বিক্রিতে বাধা দেওয়া স্থানীয়দের ওপর হামলার ও বাড়িঘর ভাঙ্গচুরের অভিযোগ উঠেছে।এ ঘটনায় স্থানীয়সহ চার যুবকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে।আহতেরা জেলা ও উপজেলা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

শুক্রবার(৩০ জুন) বিকেল ৬ টার দিকে উপজেলা ছালিয়াকান্দি ইউনিয়ন এলাকায় ছালিয়াকান্দি গ্রামে ও বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

গুরু গুরু জখম হওয়া মোঃ মকবুল হোসেন এবং আহতদের পরিবার ও স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, দীর্ঘদিন ধরে তাদের এলাকায় মৃত আব্দুল হালিম ডাক্তার এর ছেলে মোহাম্মদ জাকির (৫২), মৃত আবিদ আলীর ছেলে মোঃ তওহিদ (৬০), মৃত আ: হালিম ডাক্তারের ছেলে মোঃ আনোয়ার (৪৬), মোঃ তওহিদ এর ছেলে মোঃ তুষার (২৪), হালিম ডাক্তারের ছেলে প্রকাশে ফারুক ডাকাত (৩৪), আসাম উদ্দিন এর ছেলে মোহাম্মদ রাকিব (২৪), মোঃ তওহিদের ছেলে সাত্তার মিয়া (২৫), মোঃ আনোয়ারের ছেলে মোঃ শাওন (২১), মুসলিম সরকারের ছেলে মোঃ সেলিম (৩৩), মোঃ আলিম(৩০) খোরশেদের ছেলে পলাশসহ এই সঙ্গবদ্ধ এই দলটি এলাকায় চুরি,ডাকাতি, জুয়া খেলা ও মাদক ব্যবসাসহ মাদক সেবন করে আসছেন।তাদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে জেলার বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

তাদের কারণে এলাকার তরুণ সমাজ ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। যারা তাদের কথা শুনছে না,মাদক ব্যবসায় সহযোগিতা করছেন না, এবং মাদক ব্যবসা প্রতিবাদ ও বাধা দেওয়ার কারনে তাদের ববিঘড় ভাঙ্গচুর,দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র রামদা, চাইনিজ কুড়াল, জিয়ার পাইপ লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে জখম করে আসিতেছে এবং নানানভাবে হয়রানি মাইর ধৈইর করা হচ্ছে বলে এলাকাবাসী জানান। যারফলে এলাকার লোকজন তাদের ভয়ে কোনো ধরনের প্রতিবাদ করতে ও মোখ খোলতে সাহস পায়না।

মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আজিজুর রহমান ইবনে জলিল বলেন আমি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে গঠনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি এবং তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে, এবং দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  

You cannot copy content of this page