রত্নগর্ভা জননী পদকে ভূষিত হলেন সুফিয়া বেগম

সোনিয়া আফরিন।
বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেন এর জন্ম ও মৃত্যু দিবস স্মরণে প্রতিবছর পালিত হয় বেগম রোকেয়া দিবস। এই দিবসে বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য পাঁচজন নারীকে “জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ” পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।

হোমনা উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আজকের এই বেগম রোকেয়া দিবসে জয়িতা সফল জননী অর্থাৎ রত্নগর্ভা জননী ক্যাটাগরিতে পুরষ্কার পেয়েছেন হোমনা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সহকারী প্রধানশিক্ষক জনাব মোঃ নুরুল ইসলাম বি.কম সাহেবের সহধর্মিণী সুফিয়া বেগম।

রত্নগর্ভা সুফিয়া বেগম জীবনের কঠিন সব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে, প্রতিকূল সব পথ পাড়ি দিয়ে জীবন সংগ্রামে জয়ী হয়েছেন। অষ্টম শ্রেণিতে পড়ার সময় যখন তাঁর বিয়ে হয় তখন থেকে নিজে অমানুষিক পরিশ্রম করে সংসার চালানো ও ছেলে-মেয়েদের মানুষের মত মানুষ করার প্রত্যয় হৃদয়ে গেঁথে পথ চলেছেন। তিনি ভেঙ্গে পড়েননি। সৎ-সাহস ও নিজের উপর অবিচল আস্থা ছিল তাঁর। আর সেই আস্থা ও বিশ্বাস তাঁকে এগিয়ে যেতে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছে। এবং তিনি জীবনে জয়ী হয়েছেন।

রত্নগর্ভা সুফিয়া বেগম পাঁচপুত্র ও এক কণ্যার গর্বিতা জননী। এই জননীর জৈষ্ঠপুত্র এম. এম. রুহুল ইসলাম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনা করে এখন প্রকাশনা ব্যবসায় নিয়োজিত। মেজপুত্র ইঞ্জিনিয়ার এস. এম. মামুন অর রশীদ বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে তড়িৎ কৌশল বিভাগ থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ ইনস্টিটিউট থেকে এমবিএ ডিগ্রি অর্জন করে বর্তমানে নরওয়েতে অবস্থিত টেলিনর করপোরেশনে কর্মরত। ইঞ্জিনিয়ার এস এম মামুন অর রশীদ বাংলাদেশে থাকতে দেশের প্রথম সারির দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞান ও গণিতের উপর নিয়মিত কলাম লিখতেন।

তিনি ইতিমধ্যে “এনালাইটিক্যাল পাজল’ নামে একটি বই রচনা করেছেন। তার আরও দুটি বই প্রকাশের অপেক্ষায় আছে । তৃতীয় পুত্র ড. এম. এ. মনজুরুল ইসলাম রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) থেকে কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি অর্জনের পর পরবর্তীতে দক্ষিণ কোরিয়ায় উলসন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তরঙ্গ বিশ্লেষণের উপর পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করে বর্তমানে ইতালির ট্রেন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ের “ব্রুণো কেসলার রিসার্চ ইনস্টিটিউটে পোস্ট ডক্টরাল রিসার্চ ফেলো হিসেবে কাজ করছেন।

বিশ্বখ্যাত বিভিন্ন জার্নালে ড. মনজুরুলের লেখা নিয়মিত প্রকাশিত হয়। চতুর্থ পুত্র এস. এম. মইনুল ইসলাম হোমনা সদরে অবস্থিত অধ্যক্ষ আবদুল মজিদ মডেল স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক ও দেশের প্রথম সারির দৈনিক পত্রিকা আমাদের নতুন সময়ের সাংবাদিক। কনিষ্ঠ পুত্র ডা. এম. এম. মাহবুবুর রহমান রাজধানী ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল থেকে কৃতিত্বের সাথে এমবিবিএস ডিগ্রি অর্জন করে ৩৯তম বিসিএসের মাধ্যমে হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সহকারী সার্জন হিসেবে কর্মরত।

ডা. মাহবুবুর রহমান ইতিমধ্যে গ্রেট বৃটেনের রয়াল কলেজ অব ফিজিশিয়ান ও সার্জন থেকে সম্মানসূচক “এমআরসিএস পার্ট-এ ” ডিগ্রি অর্জন করেছেন। হোমনা উপজেলায় কোভিড-১৯ সচেতনতা ও কোভিড-১৯ এর নমুনা সংগ্রহে তার অবদান বিশাল। রত্নগর্ভা সুফিয়া বেগমের একমাত্র কণ্যা মাহমুদা আক্তার হোমনা উপজেলার পশ্চিম শ্রীমদ্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

You cannot copy content of this page