হোমনায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বাথেরুমে মহিলা রোগীর ঝুলন্ত লাশ

কুমিল্লা উত্তর প্রতিনিধি।।
কুমিল্লার হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ফাঁস দিয়ে এক মহিলা রোগীর রহস্যজনক মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার আনুমানিক দুপুর ২ টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে টয়লেটে থেকে সাজেদা বেগম (৬৫)নামের এক রোগীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সে উপজেলার ভাষানিয়া ইউনিয়নের ডহরগোপ গ্রামের মৃত সাহাব উদ্দিনের মেয়ে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানাগেছে গত ১৮ জানুয়ারী রোগীটি শ্বাসকষ্ট নিয়ে এই হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধিন ছিল।

সরেজমিনে হাসপাতালে গেলে শ্রীমদ্দি গ্রামের নাছরিন নামের একরোগী দৈনিক, বাংলাদেশ জার্নাল কে জানান রোগীনি সাজেদা বেগম(৬৫) স্বাভাবিক আচরন করতো এবং বাচ্চা ছেলে মেয়েদের সাথে খেলা ধূলা করতো। তবে পুলিশকে ভয় পাইতো। সে প্রায়ই বলতো কামরুজ্জমান আমাকে এরেস্ট করতে পুলিশ পাঠাইবে।

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মো.কামরুল ইসলাম মুঠো ফোনে জানান সাজেদা বেগম(৬৫) মুরাদনগর উপজেলার আলগীরচর গ্রামে বিয়ে হয়। তার কোন ছেলে মেয়ে নাই। স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে সে ডহরগোপ গ্রামে বাপের বাড়িতে থাকতো। কিন্ত তার ভাইয়ের স্ত্রী রহিমা বেগম তার ছেলে দুলাল মিয়া ও কামরুজ্জামান নাকি তার সাথে দুর্ব্যবহার করতো বলে আমার নিকট বিচার চাইতো। আমি বিচার করতে চাইলে তার আত্মীয়রা তাকে মানুষিক রোগী বলে চালিয়ে দিতো। তারা কোন বিচার করেনি। এর পর থেকে সে বাড়ি ছেড়ে যেখানে সেখানে বসবাস করতে থাকে।

এ দিকে রোগীনির ভাইয়ের ছেলে সাবেক ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যান ডহরগোপ গ্রামের মো. কামরুজ্জামান মুঠো ফোনে জানান, সাজেদা বেগম আমার দুর্সম্পকের ফুপু। তিনি মানষিক রোগী ছিলেন। কে বা কাহারা হোমনা হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছে আমি জানি না। আজ শুনেছি দুপুরে তিনি হাসপাতালে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। এ দিকে এলাকাবাসি সূত্রে জানাগেছে, তার বাপের অংশ (বাড়ি) ফিরে পাইতে স্থানীয় সংসদ সদস্য সেলিমা আহমাদ মেরী সহ স্থানীয় চেয়ারম্যান কামরুল ইসলাম সহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নিকট দৌড়া দৌড়ি করতো। কেহ তার বিচার করে নাই।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ ছালাম সিকদার বলেন, রোগীটি শ্বাস কষ্টনিয়ে ভর্তি হয়। আজ দুপুরের বাথরুমে ফাঁস লাগিয়ে আত্ম হত্যা করেছে। পরে পুলিশ এসে বাথরুম থেকে তার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা( ওসি) মো. আবুল কায়েস আকন্দ রোগীনি আত্মহত্যা করেছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে । তবে লাশ ময়নাতদন্তের বিস্তারিত জানা যাবে।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০