হোমনায় যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

সোনিয়া আফরিন।।
কুমিল্লার হোমনায় যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে।

এ উপলক্ষে একুশের প্রথম প্রহর শনিবার দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে (২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১) হোমনা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপজেলা প্রশাসন, স্থানীয় সংসদ সদস্য, উপজেলা পরিষদ, পৌর সভা, হোমনা থানা,উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ,জাতীয় পার্টি, হোমনা প্রেসক্লাব, উপজেলা প্রেসক্লাব, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং সর্বস্তরের জনগণ।

এ সময় অমর একুশের কালজয়ী গান ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি বাজানো হয়।

শনিবার সকাল ৯-৩০ মিনিট উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গন থেকে প্রভাত ফেরী শেষ পরিষদ মিলনায়তনে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানিয়া ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান রেহানা বেগম, পৌর মেয়র এ্যাড. মো. নজরুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. মহাসিন সরকার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাছিমা আক্তার রীনা, থানা ভারপ্রাপ্ত ককর্মকর্তা (ওসি) মো.আবুল কায়েস আকন্দ, উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. সৈয়দ মো. নজরুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোশারফ হোসেন,হুমায়ুন কবির খন্দকার, হোমনা প্রেসক্লাবের সভাপতি আবদুল হক সরকার,সাংবাদিক মো. কামাল হোসেন প্রমূখ।

পরে বিজয় সুন্দর হাতের লেখা,চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা, রচনা,কবিতা আবৃতি,দেশাত্বকবোধক গান প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

প্রসঙ্গত, ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান সরকার বাংলার ভাষার দাবির কর্মসূচি দমন করতে ঢাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে। ২১ ফেব্রয়ারির এদিনে শিক্ষার্থীরা ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে “রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই” স্লোগান দিয়ে মিছিল করেন। সেই মিছিলে গুলি চলায় পুলিশ। পুলিশের গুলিতে শহীদ হন রফিক, সালাম,বরকত, জাব্বার এবং নাম না জানা আরও অনেকে। এরপর থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি অমর শহীদ দিবস হিসেবে পালন করে আসছে বাঙালি জাতি।

পরে ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর ইউনেসকোর ৩০তম অধিবেশনে একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালিত হচ্ছে।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

You cannot copy content of this page