মুরাদনগরে যক্ষ্মা দিবস পালিত

মনির খাঁন মুরাদনগর উপজেলা প্রতিনিধি:
যক্ষাএবং করোনা একই সূত্রে গাঁথা, যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তারাই বেশী আক্রান্ত হচ্ছে।

“মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার যক্ষা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার” এই শ্লোগান কে সামনে রেখে কুমিল্লার মুরাদনগরে বিশ্ব যক্ষা দিবস পালিত হয়েছে।

বুধবার (২৪ মার্চ) সকালে সরকারী হাসপাতল কমপ্লেক্স সভা কক্ষে জাতীয় যক্ষা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচী, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ব্র্যাক মুরাদনগর অফিসের যৌথ আয়োজনে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে একটি র‌্যালি বের হয়ে সদরের গুরুত্বপূর্ন সড়কগুলো প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা কবি নজরুল মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: নাজমুল হোসেনের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন, ডা: সিরাজুল ইসলাম মানিক, ডা: গোলাম ফরহাদ জিলানী। ব্র্যাকের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন মো: রাকিব ভূইয়া, আজিজুল হক, আলতাফ হোসেন ভূইয়া।

বক্তারা আলোচকরা বলেন, যক্ষা এবং করোনা একই সূত্রে গাঁথা। যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তারাই বেশী যক্ষা এবং করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে। এ রোগ থেকে নিজেকে নিরাপদ রাখতে সচেতনতা আর নিয়ম মেনে চলার বিকল্প নেই। প্রতি বছর ২৪ মার্চ যক্ষা দিবস হিসেবে পালন করা হয়। বিশ্বব্যাপী যক্ষার প্রকোপ দূর করতে যক্ষা দিবস সচেতনতা সৃষ্টির সুযোগ আনে। এ দিবস যক্ষা প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে রাজনৈতিক ও সামাজিক প্রতিশ্রুতিকে আরও দৃঢ় করে।

সাম্প্রতিক সময়ে যক্ষার সংক্রমণ ও যক্ষারোগে মৃত্যুর ঘটনা প্রশংসনীয় হারে কমে এসেছে। ১৯৯০ সালের পর যক্ষা রোগে নিহতের সংখ্যা ৪০ ভাগ কমে এসেছে। এখনও কমছে। দ্রুত যক্ষা রোগ নির্ণয় ও উপযুক্ত চিকিৎসার কারণে যক্ষার প্রকোপ কমে আসছে। তবে এখনও যক্ষা সারা বিশ্বের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জা।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

You cannot copy content of this page