কুমিল্লায় ইংলিশ মিডিয়াম শিক্ষায় নির্ভরতার প্রতীক ময়নামতি ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজ

নিজস্ব প্রতিবেদক।।
ইংরেজি মিডিয়ামে সন্তানদের পড়ানোর জন্য কুমিল্লায় অভিভাবকদের সচেতনতা বেড়েছে। শিক্ষার্থীর ইংরেজি ভীতি দূর করে নান্দনিক পরিবেশে মানসম্মত পড়ালেখার জন্য ‍কুমিল্লায় অন্যতম প্রতিষ্ঠান ময়নামতি ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজ। প্রতিষ্ঠানটি অত্যন্ত সুনামের সাথে ইংরেজি শিক্ষায় মেধা মননে দূরদর্শী মনোভাব সম্পন্ন শিক্ষার্থী গড়ে তোলার মতো মহৎ কাজটি করে আসছে। কুমিল্লায় ইংলিশ মিডিয়ামে আপনার সন্তানের সেরা অর্জনের নির্ভরতার প্রতীক হতে পারে ময়নামতি ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজ।

ইতিমধ্যে ময়নামতি ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রতিষ্ঠাটিতে প্লে থেকে দ্বিতীয় শ্রেণি পর্যন্ত ইংরেজি মাধ্যমে এবং তৃতীয় থেকে নবম শ্রেণিতে জাতীয় শিক্ষাক্রমের ইংরেজি ভার্সনে প্রতিবছর সীমিত আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি করানো হয়। করোনার মধ্যেও ভর্তি কার্যক্রম অনলাইনে পরিচালিত হচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটির রয়েছে তথ্যবহুল ওয়েবসাইট (www.mesc.edu.bd) যেখানে সহজে যেকোনো তথ্য জানতে পারবেন ভর্তিইচ্ছুক শিক্ষার্থী বা তাদের অভিভাবক।

ময়নামতি ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজের সার্বিক প্রেক্ষাপট: ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশেই কুমিল্লা সেনানিবাসের অভ্যন্তরে নিরিবিলি সবুজে ঘেরা মনোরম পরিবেশে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে ১৯৯৭ সালের ১৩ আগস্ট ময়নামতি ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়। শুরুতে এটি ময়নামতি কিন্ডারগার্টেন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করলেও পরবর্তীতে ময়নামতি ইন্টারন্যাশনাল এবং বর্তমানে ময়নামতি ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজ হিসেবে সকল মহলে ব্যাপক পরিচিতি পেয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক এইচএসসি পর্যন্ত পাঠদানের অনুমোদনপ্রাপ্ত। বৃহৎ এ প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে প্রায় এক হাজারের মতো শিক্ষার্থী এবং ১০০ শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন।

প্রতিষ্ঠানটিতে শিক্ষার্থীদের জন্য সব রকমের সুযোগ সুবিধা রয়েছে। নিজস্ব সুপরিসর ভবন, মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম, কম্পিউটারল্যাব, সুসজ্জিত লাইব্রেরি, নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা, শ্রেণিভিত্তিক শিক্ষাসফর, বার্ষিক বনভোজন, ক্যান্টিন সুবিধা, সিসিটিভি, আরএফআইডি নিয়ন্ত্রিত প্রবেশ ব্যবস্থা এবং খেলাধুলার জন্য রয়েছে বিশাল মাঠ।

ময়নামতি ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মেজর মোহাম্মদ রিয়াসাত ইফতেখার হোসেন (পিএসসি,এইসি) জানান, ভবিষ্যতের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ‘ভিশন-২০৩০’ নামে দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়েছে।এগুলো বাস্তবায়নের মধ্যে দিয়ে ময়নামতি ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজ দেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠে পরিণত হবে। গত কয়েক বছর ধরে পিএসসি, জেএসসি এবং এসএসসিতে শতভাগ সাফল্য ও প্রতিবছর ক্যাডেট কলেজে সর্বাধিক শিক্ষার্থী মেধা তালিকায় ভর্তির সুযোগ পাওয়ায় সর্বমহলেই প্রতিষ্ঠানটির সুনাম ছড়িয়ে পড়েছে।

 

তিনি আরো জানান, মহামারী করোনা ভাইরাসের মধ্যেও সব কার্যক্রম সুন্দরভাবে পরিচালিত হচ্ছে। শিক্ষার্থীরা যেন পিছিয়ে না পড়ে সেজন্য করোনা মহামারীর শুরু থেকেই অনলাইন ক্লাস শুরু করা হয়। বর্তমানে শিক্ষার্থীরা বাসায় নিরাপদে থেকে অনলাইনে ক্লাস চালিয়ে যাচ্ছে। অনলাইন ক্লাসের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মূল্যায়নের জন্য এ্যাসাইনমেন্ট গ্রহন করা হয়েছে। এছাড়াও অনলাইনে বিভিন্ন সহশিক্ষা কার্যক্রম যেমন- জাতীয় শোকদিবস, সাইন্স ফেয়ার, সশস্ত্র বাহিনী দিবস, ক্লাসপার্টি ইত্যাদি অনুষ্ঠান উদযাপনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মানসিক বিকাশে সহায়তা করছে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা।

অধ্যক্ষ মেজর মোহাম্মদ রিয়াসাত ইফতেখার হোসেন দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করে জানান, সকলের প্রচেষ্টায় ময়নামতি ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজ সামনের দিনগুলোতে সুনামের সাথে এগিয়ে যাবে। এ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের ইংরেজি শিক্ষায় পারদর্শী এবং বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে শিক্ষিত করে তুলতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

     আরো দেখুন:

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  

You cannot copy content of this page